Watch The Best Educational TV Live Programs & News Update Today

info@newbangla.tv


গ্যাস্ট্রিক বা এসিডিটি থেকে চিরতরে বাচার উপায়

কোনো না কোনো সময় প্রায় সবাইকেই পেটে জ্বালাপোড়া কিংবা অ্যাসিডিটিতে ভোগতে দেখা যায়। কারও কারও জন্য এটাতো নিত্য-নৈমেত্তিক ঘটনা।

সাধারণত অতরিক্তি খাবার, ঝাল খাবার, অতরিক্তি ওজন, অতরিক্তি মদপান কিংবা কফি খেলে অ্যাসিডিটি দেখা দিতে পারে। পেটেরে গ্যাস্ট্রিক গ্রন্থি থেকে অতরিক্তি মাত্রায় অ্যাসিডের নিঃসরণে অ্যাসিডিটি সমস্যা দেখা দেয়।। অ্যাসিডিটির প্রধান উপর্সগ হচ্ছে বুক-জ্বালাপোড়া। অ্যাসিডিটির সমস্যা ওষুধে সহজে সারলওে তা র্দীঘস্থায়ী সমাধান নয়। কিছু সহজ ও প্রাকৃতকি উপায় আছে যেগুলো মা্নলে সহজে অ্যাসিডিটি দূর হয়।

গ্যাস্ট্রিক বা এসিডিটি থেকে চিরতরে বাচার উপায়

১. ডাবরে পানিঃ বুক-জ্বলুনি ঠেকাতে অন্যতম সেরা প্রাকৃতকি উপায় হচ্ছে ডাবের পানি। বুক জ্বলুনি বোধ করতে ডাবের পানি পান করুন।

২. কোমল পানীয় ত্যাগঃ অনকে মনে করেন গ্যাসের সমস্যা সমাধানে বা অ্যাসিডিটি ঠেকাতে কোমল পানীয় বা র্কাবোনেটেড-ক্যাফনিটেড বেভারেজ কাজে আসে। আসলে এতে হিতে বিপরীত হয়। এসব পানীইয়ের পরর্বতিতে সবুজ চা, বা হারবাল চা অধকি র্কাযকর।

৩. ধূমপান বন্ধঃ যাঁরা নয়িমতি ধূমপান করনে, এ অভ্যাসটি ছাড়তে হবে।

৪. মসলাদার খাবার ত্যাগঃ বেশী মসলাদার খাবার খাওয়া কমাতে হবে। যেমন আচার, ঝাল চাটন, ভিনেগার প্রভৃতি খাওয়া কমাতে হবে।

৫. খাদ্যাভ্যাসঃ অল্প হলওে নয়িমতি বা সময় মেনে খাবার খাওয়া উচতি। একবার খাওয়ার পর র্দীঘসময় বিরতি দিয়ে খাবার খেলে অ্যাসিডিটি হয়।

৬. পুদনিা পাতাঃ এসিডিটি থেকে প্রাকৃতিক উপায়ে স্বস্তি দিতে পারে পুদনিা পাতা। পানি দিয়ে কছিু পুদনিা পাতা সদ্ধে করে খাবার পরে এক গ্লাস করে পান করা যেতে পারে।

৭. লবঙ্গঃ বুক জ্বলুনি ঠেকাতে লবঙ্গে প্রাকৃতকি গুণ আছে। বুক জ্বলুনি বোধ করলে একটি লবঙ্গ মুখে দিয়ে চিবাতে পারনে।

৮. সবজিঃ সিজনে ডাটা, শিম, মিষ্টি কুমড়া, বাঁধাকপি, গাজর, পেয়াজের মতো সবজিতে অ্যাসিডিটি ঠেকানোর উপাদান আছে। এ ধরনরে সবজি খাওয়ার অভ্যাস করতে পারনে।

৯. ঘুমরে আগে খাবারঃ ঘুমানোর কমপক্ষে দুই তনি ঘণ্টা আগে খাবার খাওয়া উচতি। ভারী খাবার খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বছিানায় যাওয়া উচতি নয়।